অনন্য অন্যস্বর

0
19

সুদূর কানাডায় টরন্টো শহরে এক অনন্য নজির স্থাপন করলো আবৃত্তি সংগঠন অন্যস্বর। স্বাধীন বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের বিজয় দিবসকে লক্ষ্য করে ডিসেম্বর মাসের প্রতি সন্ধ্যায় ৮ ঘটিকায় শুরু করে ৪৫ মিনিটের এই অনলাইন লাইভ অনাড়ম্বর আয়োজনে কবিতা ও গান পরিবেশন করে দেশেবিদেশে অগণিত চেতনা ঋদ্ধ মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণ করলেন অন্যস্বরের বন্ধুরা। মহান মুক্তিযুদ্ধে মা-মাতৃভূমির জন্য আত্মবলিদানকারী বীর শহিদদের অপরিশোধ্য ঋণের কথা স্বীকার করা কবিতা, গান আর কথায় শ্রদ্ধা নিবেদন করলেন। মুক্তিযুদ্ধের চেতনার আত্মপ্রত্যয়ের দীপ্তিকে তুলে ধরলেন অনন্য মাত্রায়। তাদের এই কর্মকাণ্ডের আয়োজনের পরিসর ছোট, কিন্তু এর মহিমা বিশাল। বয়স তাদের ভিন্ন, কিন্তু তারা দেশমাতৃকার জন্যে চেতনার তারুণ্যে উদ্দীপ্ত। পরিবেশনার শুদ্ধতার চেয়ে হৃদয় নিংড়ানো শ্রদ্ধার বিনম্রতা তাদের কাছে বড়। প্রশংসা বা বাহ্বা চাওয়া চেয়ে শহিদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনে নিজেদেরকে বিলিয়ে দেওয়াকেই জ্ঞান করছেন বেশি। স্থানীয় মিজান কমপ্লেক্স-এর শায়লা রহমানের দোকানটিকেই স্টুডিও বানিয়ে অনলাইনের উদ্দেশ্যে অন্যস্বর এই অনন্য আয়োজনের মাধ্যেমে টরন্টো থেকে মুক্তিযুদ্ধের বা দেশের জন্য কবিতা ও গানকে ছড়িয়ে দিচ্ছেন বিশ্বময়। এজন্য অন্যস্বরের বন্ধুদের আমি অভিবাদন জানাই।
বন্ধুরা, আমি অবাক হয়ে তোমাদের উচ্চারণ শুনি। শীতের তীব্রতাকে কান ধরে পেছনে ফেলে তোমাদের উচ্চারণে স্বাধীনতার স্পৃহা আর মুক্তিযুদ্ধের প্রতি অকুতোভয় চেতনার স্ফুরণ দেখে সাহস পাই। আবার বাংলার মানুষকে ধর্মনিরপেক্ষতার আন্দোলনে, অসা¤প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্নকে জিইয়ে রাখার বীজ বপনের কাজটি তোমরাই করছো, দ্বিধাহীন চিত্তে আজ সারা বিশ্বকে আমি একথা জানাতে চাই।

আজকের তোমাদের প্রতিটি মুহূর্ত ভবিষ্যতের মুক্তবুদ্ধির বাঙালির স্মৃতির আয়নায় ভেসে উঠবে। বহির্বিশ্বে বাঙালিদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সাংস্কৃতিক আন্দোলনের ইতিহাসের একটি নিয়ামক ও উপাদান হিসেবে গণ্য হবে।
তোমাদের উচ্চারণে কোথাও কোথাও ভুল হতে পারে। সুরের নিখাঁদ কাজগুলো ছুটে যেতে পারে। প্রকাশের বাক্য গঠনে শব্দচয়নে বুদ্ধিদীপ্ততার কমতি হতে পারে। কিন্তু আমি সাক্ষী, বুক হাত দিয়ে আমি বলতে পারি, তোমাদের চেয়ে শুদ্ধ উচ্চারণ আর নেই। তোমাদের মতো বিশুদ্ধ গানের সুর আর নেই। তোমাদের চেয়ে শুদ্ধ শব্দের বাক্য গঠন আর কেউ করেনি। কেননা, তোমরা আমার ধর্ষিতা মায়ের কথা বলছো। তোমরা আমার রক্তমাখা বোনের কথা বলছো। বুকে গুলিবিদ্ধ আমার ভাইয়ের কথা বলছো। বলছো শহিদের প্রতি আমাদের অপরিশোধ্য ঋণের কথা।

তোমাদের সকলের প্রতি আমার বিনম্র অভিবাদন। আমার অকুণ্ঠ শুভেচ্ছা গ্রহণ করো। আমার প্রাণ উজাড় করা ভালোবাসা গ্রহণ করো। চেতনার আগুনে ঝলসিত বিশ্বাসের রক্তধারায় তোমরাই আমার আপন স্বজন। তোমাদের সবাইকে আমি আলিঙ্গনে বুকে জড়িয়ে রাখবো; আজীবন!

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here