এবাকান ফ্যামিলি নাইট

9

আমরা আনন্দের সঙ্গে জানাচ্ছি যে গত শনিবার, ২৭শে জানুয়ারি, ২০১৮ কানাডায় অবস্থানরত বাংলাদেশী কৃষিবিদদের সংগঠন এবাকান এর উদ্যোগে জমজমাটভাবে পালিত হলো এবাকান ফ্যামিলি নাইট। এতে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন অন্টারিও প্রভিন্সিয়াল পার্লামেন্টের সদস্য (এমপিপি) জনাব আর্থার পটস। কানাডায় অবস্থিত প্রায় ৪০০ মেধাবী দক্ষ কৃষিবিদ নিয়ে এই সংগঠন- “আবাকান” জানালেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদিকা নুরুন নাহার খানম শিরিন। গত ২৭ জানুয়ারি ২০১৮ টরন্টোর গ্রান্ড প্যলেসে মহাসমহারোহে অনুষ্ঠিত হল আবাকানের ফেমিলি নাইট, প্রায় দুই শতাধিক সদস্য এতে অংশগ্রহণ করে, যারা কেউবা কৃষি বিজ্ঞানী, কৃৃৃৃষি গবেষক কিংবা কৃষি বিষয়ক স্পেসালিস্ট। বাংলাদেশ ও কানাডার জাতীয় সংগীত পরিবেশন এর মাধ্যমে অনুুুষ্ঠানের শুভ সুচনা হয়। সুদক্ষ সংগঠক, সাংস্কৃতিক সম্পাদক মো: কামরুজ্জামান স্বপন এর পরিচালনায় গোটা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানটি ছিল অত্যন্ত উপভোগ্য।
এবাকান সভাপতি কৃষিবিদ কামাল মুস্তাফা হিমু ও সাধারণ সম্পাদক ডঃ শিরীন নুরুন নাহার খানম এর নেতৃত্বে এবং সকল নির্বাহী কমিটির সুযোগ্য সদস্যদের অক্লান্ত পরিশ্রম ও নিষ্ঠার ফলশ্রুতিতে এমন সুন্দর মনে থাকার মত একটি অনুষ্ঠানের সফল সমাপ্তি সম্ভব হয়েছে। পরিচয় করিয়ে দেয়া হয় আবাকানের নতুন কমিটিকে। সার্বিক অনুষ্ঠান ব্যবস্থাপনায় নির্বাহী কমিটির গোলাম মোস্তফা, হামিদুল হক, রেজাউল করিম বাদল, গোলাম কিবরিয়া ও কৃষিবিদ রুবেল ভূমিকা অসাধারণ প্রশংসনীয়।
প্রথমে কৃষিবিদদের সন্তানদের দ্বারা পরিবেশিত হয় গীতি আলেখ্য “নবান্ন” এর মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সুচনা হয়। আর তাতে দেশীয় সংস্কৃতির চিরন্তন উপস্থাপনা দেখতে দেখতে চোখে ভাসছিল গ্রামবাংলার জনপদের চিত্র। ইংরেজি শিক্ষিত আমাদের শিশুরা যেভাবে বাংলা স্ক্রিপ্ট ইংরেজিতে বানান করে লিখে, দিনের পর দিন রিহার্সেল দিয়ে এই গীতি আলেখ্য মঞ্চে তুলে এনেছেন এর এর কোনো তুলনাই হয় না। আবাকান পরিবারের ২০টির ও বেশি শিশু-কিশোরদের অংশগ্রহণে পরিবেশিত হয় এই গীতি আলেখ্য: নবান্ন অংশগ্রহণে এবাকান পরিবারের শিশু-কিশোররা হল : Lamia Nawar, Syara Nudrat Nawmi, Ahnaf Yasar Nafis, Iffat Iqbal Rohan, Asha Afroze, Najrfah Tasnim, MD Tamim Adnan, Nasin Nawer Krish Saha Ahnaf Nafis, Wakil, Ahmed, Tasneem Ahmed, Srrabonto Chakraborty, Prapti Chakraborty Pranti, Chakraborty, Debashis Roy, Shownak Avik Saha, Sinjini Saha Farhan Tanzim, Fareen Tahmeed. পরিচালনায় ছিলেন হাসমত আরা জুই ও সোমা চৌধুরী। পরবর্তীতে কৃষিবিদগণ ও তাদের পরিবারের সদস্যরা গান এবং নাচ পরিবেশন করেন। গানে গানে সুরের আবেশে ভাসালেন ফাহামিদা নতুন, সুনিতি সরদার, কৃষিবিদ ড: প্রশান্ত, কৃষিবিদ ডালিয়া, কৃষিবিদ সোমা, কৃষিবিদ জুই, কৃষিবিদ ফেরদৌস ও অন্যান্য শিল্পীরা। অত্যন্ত আকর্ষণীয় রাফেল ড্র পরিচালনা করলেন দক্ষ সংগঠক কৃষিবিদ আবুল বাসার ও কৃষিবিদ কিবরিয়া।
আনন্দ অনুভূতির আলোকরশ্মি সকলের মনের এপ্রান্ত থেকে ওপ্রান্তে ঢেউ তুলতে থাকে। মনকাড়া অনুষ্ঠান মুগ্ধতা ছড়াতে থাকে উপস্থিত সকলের মনে। এরই মাঝে এবারের লিডারশিপ এওয়ার্ড প্রদান করা হয়। কৃষিবিদ ডঃ আব্দুল আউয়ালকে। নির্বাহী কমিটির বাইরে যারা এই অনুষ্ঠান সফল করতে অবদান রেখেছেন তাদের কথা আলাদা করে বলতেই হয়। হাসমতআরা চৌধুরী জুঁই ও সোমা চৌধুরী, এবারের কালচারাল সেক্রেটারি কামরুজ্জামান স্বপন যাদের হাতে গীতি আলেখ্য মঞ্চে তুলে আনার ভার দিয়েছিলেন তারা সফল হয়েছেন। সবার অলক্ষে নতুন কমিটির সকল খবর অর্থনীতির জোর না হলে কোনো অনুষ্ঠানের সফলতা আসে না। আর এর চাকাটি ঘুরাতে যারা সহায়তা করেছেন সেই সব কৃষিবিদ রাসেল সিদ্দিকী, ডঃ মোহাম্মদ আলী, আব্দুল মান্নান, ডঃ সুশীতল চৌধুরী, নুরুল সরকার, প্রনবেশ পোদ্দার, তপন সাইদ, ইকবাল হোসেইন প্রমুখ।
নির্বাহী কমিটির বাহিরে বিভিন্ন সময়, বিভিন্নভাবে, বিভিন্ন আংগিকে সহযোগিতা করেছেন আহসান উল্লাহ মাসুদ, ইকবাল হোসাইন ও কাকুল।
কানাডাতে কৃষিবিদগণ কৃষি বহির্ভুত নতুন নতুন ক্ষেত্রে সকল বাধা অতিক্রম করে এগিয়ে চলেছে। পরিচয় বাংলাদেশী অভিবাসী সমাজের জন্য আমাদের দায়বদ্ধতা আছে। সেই দায়বদ্ধতার আলোকে, দূর প্রবাসে, নতুন আবাসস্থলে একে অপরের প্রতি অকুন্ঠ ভালোবাসা নিয়ে, মান-অভিমান বেদনা ভুলে গিয়ে, হাসি কান্নার সাথী হয়ে অভিবাসী বাংলাদেশীদের এক আলোকিত সমাজ বিনির্মাণে কৃষিবিদদের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

শেয়ার করুন