টরন্টো পুলিশের জনবান্ধব পদক্ষেপ

19

পুলিশের সেবা টরন্টোতে বসবাসরত বিভিন্ন কমিউনিটির মানুষের কাছে ভালোভাবে পৌঁছিয়ে দেবার জন্য টরন্টো পুলিশ এক জনবান্ধব পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। এর ফলশ্রæতিতে গত ৩রা ফেব্রæয়ারি, শনিবার বিকেলে ড্যানফোর্থ এভিনিউ ও ভিক্টোরিয়া পার্ক সংলগ্ন একশেষ পয়েন্ট এ টরন্টো পুলিশ বাংলাদেশী কমিউনিটির মানুষদের সাথে এক আলোচনায় মিলিত হয়।
উক্ত আলোচনায় যে সব বিষয়ের ওপর বিশেষভাবে আলোকপাত করা হয় সেগুলো হচ্ছে, কমিউনিটির মানুষদের সাথে পুলিশের সম্পর্ক বাড়ানো, কমিনিউনিটির সদস্যরা কিভাবে পুলিশ বিভাগে নিয়োগপ্রাপ্ত হতে পারে এবং আইন শৃংখলার বিষয়ে বাংলাদেশী কমিউনিটির মানুষেরা কি ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হয় ও কিভাবে এসব সমস্যার মোকাবেলা করা যেতে পারে।
উক্ত আলোচনায় টরন্টো পুলিশ সদর দপ্তর এর পুলিশ প্রতিনিধিরা বলেন, বহুজাতিক দেশ কানাডায় সকল কমিউনিটির মানুষের পুলিশের সব রকম সেবা পাওয়ার পূর্ণ অধিকার রয়েছে। তারা বলেন, টরন্টোর আর্থ-সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অংগনে বাংলাদেশী কমিউনিটির অবদান উল্লেখ করার মত এবং বাংলাদেশী কমিউনিটি মানুষেরা নিজেদের শ্রম ও মেধা দিয়ে প্রতিনিয়ত টরন্টো’কে আরো সুন্দর এক নগরী হিসেবে গড়ে তুলছে। পুলিশ প্রতিনিধিরা আরো বলেন, সংখ্যার দিক দিয়ে বাংলাদেশী কমিউনিটি একটা উল্লেখযোগ্য আসনে থাকলেও এ কমিউনিটি থেকে পুলিশ বিভাগে কর্মরত সদস্য একেবারে নেয় বললেই চলে। তারা আশা প্রকাশ করেন, বাংলাদেশী কমিউনিটি থেকে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক সদস্যের উপস্থিতি তারা টরন্টো পুলিশ বাহিনীতে দেখতে চান এবং এ ব্যাপারে টরন্টো পুলিশ সব রকম সহায়তা দিতেও প্রস্তুত। তারা আরো বলেন, সুন্দর ও শান্তিপ্রিয় টরন্টো নগরীর জন্য এর কোনো বিকল্প নেই।
বাংলাদেশী কমিউনিটির জন্য “মীট এন্ড গ্রীট” এই আলোচনা সভার আয়োজন করে টরন্টো পুলিশ সদর দপ্তর এবং এর প্রচার ও প্রসারে টরন্টো পুলিশকে সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করেন বাংলাদেশী কমিউনিটির আশরাফ আলী।

শেয়ার করুন