বান্দরবানে তরুণীকে জড়িয়ে ধরা চেয়ারম্যানের ছবি ভাইরাল

44

অনলাইন ডেস্ক : বান্দরবানে আলীকদম উপজেলার নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান আবুল কালাম সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে রুনপাউ ম্রোকে জড়িয়ে ধরা ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। শনিবার আলিকদমের মেরিংচর পাড়ায় এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ফুলের মালা পরিয়ে দেয়ার পর রুনপাউ ম্রোকে জড়িয়ে ধরে ছবি তুলে এবং সেই ছবি নিজের ফেসবুক আইডিতে আপলোড করলে ছবিটি ভাইরাল হয়ে পড়ে। পরে ছবিটি নিয়ে সমালোচনা সৃষ্টি হলে সেই ছবি তার ফেসবুক ওয়াল থেকে সরিয়ে ফেলেন চেয়ারম্যান আবুল কালাম। জানা যায়, শনিবার সকালে আলীকদমের মেরিংচর ম্রো পাড়ায় এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে কয়েকজন রুনপাউ ম্রোকে চেয়ারম্যান আবুল কালামকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেয়। অনুষ্ঠানের এক ফাঁকে চেয়ারম্যান আবুল কালাম এক তরুণীকে জড়িয়ে ধরে ছবি তুলেন এবং সেই জড়িয়ে ধরা ছবি চেয়ারম্যান নিজেই তার ফেসবুকে আপলোড করলে সঙ্গে সঙ্গে ছবিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়। সেই ছবি নিয়ে ফেসবুকে বেশ সমালোচনার ঝড় উঠে এবং এর তীব্র নিন্দা জানায়। এ বিষয়ে আলীকদম উপজেলার চেয়ারম্যান আবুল বলেন, মেয়েটি আমাদের সহকর্মী।

তিনি নির্বাচনে আমাকে জয়ী করার জন্য অনেক কষ্ট করেছেন। শনিবার সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আবেগে সে কাঁদছিল। কান্নার একপর্যায়ে মাটিতে পড়ে যাওয়ার সময় আমি তাকে ধরি। এদিকে সোমবার বিকালে ওই তরুণী ও তার বড় ভাই মেনরুং সংবাদ সম্মেলন করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে তার ভাই মেনরুং ম্রো বলেন, আমার বড় ভাই আবুল কালাম চেয়ারম্যান নির্বাচনে জয়ী হওয়ায় খুশি। আমার ছোট বোন কান্না করতে করতে মাটিতে পড়ে যেতে চেয়েছিল। তাই বড় ভাই চেয়ারম্যান আবুল কালাম আমার ছোট বোনকে ধরেছিল। এতে সমালোচনার কি আছে। এটা আমাদের ভাই-বোনের বিষয়। আমরা সবাই একে অপরের ভাই-বোনের মতো করে চলাফেরা করে আসছি। এতে দোষের কিছু নাই। এ সময় রুনপাউ ম্রোসহ ম্রো সম্প্রদায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। প্রসঙ্গত, বিএনপির বহিষ্কৃত নেতা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আবুল কালাম গত ১৮ই মার্চ আলীকদম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দোয়াত কলম প্রতীক নিয়ে জয়লাভ করেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন নৌকা প্রতীকের আওয়ামী লীগের প্রার্থী জামাল উদ্দিন।

শেয়ার করুন