সফলভাবে সরগম মিউজিক একাডেমীর ৮ম বর্ষপূর্তি উদযাপিত হল

0
15

অনলাইন ডেস্ক : মন্ট্রিয়লের মূলধারার শুদ্ধ সঙ্গীতশিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরগম মিউজিক একাডেমী, গত ৯ই নভেম্বর মন্ট্রিয়লের পার্ক ভিউ রিসিপসন হলে, সফলভাবে উদযাপন করল এর অষ্টম বর্ষপূর্তি এবং গ্রেডিং-২০১৯। ফিতা কেটে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা করেন কানাডার প্রধানমন্ত্রীর অফিস ডিরেক্টর মিসেস স্টাবরোলা ডাক্লারাস। অস্টম বর্ষপূর্তির কেক কাটেন সিটি কাউন্সিলর মিসেস মেরী ডেরস। এই সময়ে কানাডার প্রধানমন্ত্রী অনারেবল জাস্টিন ট্রুডোর শুভেচ্ছা বাণী নিয়ে মঞ্চে আসেন মন্ট্রিয়লের প্রভাবশালী পারলামেন্ট মেম্বর মিঃ মার্ক মিলার এম.পি.। তিনি প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা বাণী পাঠ করেন এবং পরে তা একাডেমীর প্রিন্সিপাল ডরিন মলি গোমেজের হাতে হস্তান্তর করেন। এই পর্বগুলির সময় মঞ্চে অতিথি হিসাবে আরো উপস্থিত ছিলেন যথাক্রমে পার্লামেন্ট মেম্বর সুরাইয়া মারটিনে ফ্রিডা’র পলিটিকাল এটাসে রোজ ক্লেমন্ট-পেতিত, মিঃ রিকারড স্পোরি, ড. শোয়েব সাইদ, ড. ওয়াইজ উদ্দীন, ড. মইনূল আহসান, মুক্তিযুদ্ধ গবেষক তাজুল মোহাম্মদ, সাংবাদিক মনিরুজ্জামান, শাহাব কাজী, একাডেমীর ডিরেক্টর রনজিত মজুমদার এবং প্রিন্সিপাল ডরিন মলি গোমেজ। সাথে সাথে একাডেমীর শিক্ষার্থীগণ পরিবেষণ করে কানাডা-বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত এবং তিনটি কোরাস।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে ছিল সরগম মিউজিক একাডেমীর বাৎসরিক মূল্যায়নের ফলাফল প্রকাশ এবং অভিষেক । নতুন ভর্তি হওয়া ছাত্রছাত্রীদের আনুষ্ঠানিকভাবে সরগম মিউজিক একাডেমীতে অভিষিক্ত করেন কানাডার জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী এবং বেহালাবাদক মিসেস এলাইজা মূর, মন্ট্রিয়ল আর্ট সেন্টারের ডিরেক্টর এবং খ্যাতিমান আর্টিস্ট মিসেস রোক্সনা কিবাসি, সঙ্গীতজ্ঞ মাহবুবুর রহমান ভুইয়া এবং খ্যাতিমান তবলা শিল্পী ঝলক দেব চৌধুরী।

কানাডার তরুন প্রজন্মদের নিয়ে কাজ করা সংগঠন বি.সি.সি.বি. মন্ট্রিয়ল সরগমের এই আট বছরপূর্তি অনুষ্ঠানে একাডেমীর প্রিন্সিপাল ডরিন মলি গোমেজকে তার সঙ্গীত একাডেমীর মাধ্যমে সংস্কৃতি সেবার মূল্যায়ন হিসাবে একটি নান্দনিক ক্রেস্ট উপহার দেন। সেই সাথে ক্রেস্টটির অনুলিপি একাডেমীর প্রত্যেকটি ছাত্র-শিক্ষকদের ডরিন মলি গোমেজ উৎসর্গ করেন।
ক্রেস্টটি হস্তান্তর করার সময় বি.সি.সি.বি. মন্ট্রিয়লের মিঃ শাহাব কাজী, রিয়াজ ফরিদি, নাফিসা, রুমানা চৌধুরীসহ অন্যান্য সদস্যগণ মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন। এর পর একাডেমীর উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রীদের হাতে উপহার এবং রেজাল্টকারড তুলে দেন মন্ট্রিয়লের বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক এবং সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ।

অনুষ্ঠানের তৃতীয় পর্বে অনুষ্ঠিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান “সুর-ঝংকার”।
সাংস্কৃতিক পর্বটি শুরু হয় উচ্চাঙ্গ সঙ্গীতের বিশেষ রাগ বাগেশ্রী পরিবেষণের মধ্য দিয়ে। রাগটি পরিবেষণ করে একাডেমীর সিনিয়র শিক্ষার্থী মৌসুমি নাথ। এর পর ধাপে ধাপে একাডেমীর ছাত্র-ছাত্রীদের দ্বারা পরিবেশিত হয় নাচ, গান, গীটার, বেহালা এবং তবলার লহরি। সমগ্র অনুষ্ঠানটির উপস্থাপনায় ছিলেন যথাক্রমে ঃ নাজনিন নিশা, শর্মিষ্ঠা মন্ডল এবং শিপ্রা খান। তবলায় সঙ্গদ করেছেন ঝলক দেব চৌধুরী এবং অমরদ্বীপ সিং। টাম্বোলিনায় ছিলেন রনজিত মজুমদার। এর পর সবাই মিলিত হয় বাৎসরিক আনন্দভোজে। এসময় সবার উদ্দেশ্যে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন ডরিন মলি গোমেজ। সবশেষে একাডেমীর ডিরেক্টর রনজিত মজুমদার সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here