শীতল পাটির বিশ্ব স্বীকৃতির আশা সংস্কৃতি মন্ত্রীর

3

ঢাকা : ইউনেস্কো ইনট্রানজিবল হ্যারিটেজের স্বীকৃতির অপেক্ষায় সিলেটের ঐতিহ্যবাহী শীতল পাটি। সিলেটের ঐতিহ্যবাহী শীতল পাটির বিশেষ প্রদর্শনী উদ্বোধনকালে এ তথ্য জানান, সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। তিনি বলেন, আমাদের বাংলাদেশের বিভিন্ন পর্যায়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা লোকশিল্পের ঐতিহ্য ধরে রাখতে আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। সরকারিভাবে সহযোগিতার পাশাপাশি বেসরকারিভাবে আমাদের এগিয়ে আসতে হবে। বিত্তবানদের সৌখিনতার অংশ হিসাবে লোক শিল্পের চাহিদা তৈরির পাশাপাশি বিদেশে রপ্তানি করে আয় করা সম্ভব। ঐতিহ্যবাহী শীতল পাটিকে ইউনেস্কো স্বীকৃতি দেবে বলে আমরা আশা করছি।
গতকাল রাজধানীর জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল অডিটরিয়াম হলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে মন্ত্রী বলেন, শীতল পাটি ইউনেস্কোর স্বীকৃতি পেলে ব্যাপক আয়োজনের মাধ্যমে তা উদযাপন করা হবে। নলিনীকান্ত ভট্টশালী গ্যালারির আটদিন ব্যাপী শীতল পাটি প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. ইব্রাহিম হোসেন খান ও লোকশিল্প গবেষক শ্রী চন্দ্র শেখর সাহা। অনুষ্ঠানটিতে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সভাপতি শিল্পী হাশেম খান। প্রদর্শনীতে দর্শকদের জন্য রাখা হয়েছে বিভিন্ন নকশার রং ও আকৃতির শীতল পাটি। শীতল পাটিতে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে আবহমান বাংলার রূপ, কবিতা, কাল্পনিক চরিত্র, জ্যামিতিক আর্ট, প্রিয়জনের অবয়ব ইত্যাদি। সেই সঙ্গে শীতল পাটির কারিগররা শীতল পাটি তৈরি করে মুগ্ধ করছেন দর্শকদের। প্রদর্শনীতে আরো থাকছে শীতল পাটি তৈরির পুরো প্রক্রিয়ার ভিডিও।

শেয়ার করুন