’৭১ এর জেনোসাইড নিয়ে আলোচনা

0
35

শওগাত আলী সাগর : ‘জেনোসাইড’ রাজনীতি বিজ্ঞানীদের অত্যন্ত আগ্রহের সাবজেক্ট – এটা নতুন কোনো তথ্য নয়। কিন্তু আন্তর্জাতিক রাজনীতি বিজ্ঞানী এবং গবেষকদের কাছে ১৯৭১ সালে বাংলাদেশে সংঘটিত গণহত্যাও গুরুত্ব পাচ্ছে। আধুনিক ইতিহাসের বর্বরোচিত গণহত্যা হিসেবে স্বীকার করছেন প্রায় সব গবেষকই। ফলে সমসাময়িককালে জেনোসাইড বা গণহত্যা নিয়ে প্রকাশিত অধিকাংশ গবেষণা গ্রন্থেই বাংলাদেশের গণহত্যা স্থান পাচ্ছে। কানাডার অন্যতম প্রধান বিশ্ববিদ্যালয় ‘ইউনিভার্সিটি অব টরন্টো’ও বাংলাদেশের গণহত্যাকে এড়িয়ে যেতে পারেনি।

সমকালীন ইতিহাসের সাতটি মর্মন্তুদ গণহত্যা নিয়ে একটি গবেষনা গ্রন্থ প্রকাশ করেছে ইউনিভার্সিটি অব টরন্টো। ‘জেনোসাইড’ নিয়ে গবেষণা এবং অধ্যাপনায় আন্তর্জাতিকভাবে খ্যাতিমান অধ্যাপক স্যামুয়েল টটেন এর সম্পাদনায় এই গ্রন্থটিতে স্থান পেয়েছে বাংলাদেশের গণহত্যার ইতিহাসও। ইউনিভার্সিটি অব ওয়েষ্টার্ন অন্টারিও’র রাজনীতি বিজ্ঞানের অধ্যাপক গবেষক সেলিম মনসুর লিখেছেন বাংলাদেশের গণহত্যার অংশটুকু।
আন্তর্জাতিক ইতিহাসবিদ, গবেষকরা বাংলাদেশের সংঘটিত ১৯৭১ এর গণহত্যাকে কিভাবে দেখেন? ‘আধুনিক ইতিহাসের নিষ্ঠুরতম গণহত্যা সংঘটিত হয়েছে বাংলাদেশের, ১৯৭১ সালে’- এই ব্যাপারে তাদের কারোই কোনো দ্বিমত নেই। কিন্তু গণহত্যায় নিহতের সংখ্যা নিয়ে এদের প্রায় সবার মতামতই ভিন্ন, বলাইবাহুল্য- বাংলাদেশের অবস্থানের সঙ্গে এই বক্তব্যগুলো সংঘাতপূর্ণ। সেলিম মনসুর যদিও বলেছেন, সংখ্যায় কি আসে যায়, এটা গণহত্যা এবং বর্বরোচিত গণহত্যা, তবু আমাদের জানতে ইচ্ছে করে- আন্তর্জাতিক গবেষণায় বাংলাদেশের দাবিটা গ্রহণযোগ্যতা পায় না কেন? আমরা কি যথাযথভাবে আমাদের অবস্থানটা আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তুলে ধরতে পারিনি? না কি তাবৎ রাষ্ট্রবিজ্ঞানীরা আমাদের পাত্তা দিচ্ছে না? এই প্রশ্নগুলো করার আমাদের কি কোনো সুযোগ আছে?

টরন্টোয় বসবাসরত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক ফারহানা আজিম শিউলী এমনি একটি সুযোগ তৈরি করে দিয়েছেন আমাদের। টরন্টোর বাঙালি কমিউনিটিতে তুমুল সাংস্কৃতিক চর্চার ভীড়ে শিউলী ‘পাঠশালা’ নামক একটি সংগঠনের ব্যানারে বুদ্ধিবৃত্তিক চর্চা চালিয়ে যাচ্ছেন। টরন্টোর বাঙালি কমিউনিটিতে শিউলীর পাঠশালাই মূলত দৃশ্যমান বুদ্ধিবৃত্তিক চর্চার প্লাটফরম। আগামী শনিবার পাঠশালার আসরে সেলিম মনসুরকে নিয়ে আসছেন শিউলী। ইউনিভার্সিটি অব টরন্টো কর্তৃক প্রকাশিত গণহত্যা বিষয়ক ‘Dirty Hands and Vicious deeds’ বইটি নিয়ে আলোচনায় বাংলাদেশের গণহত্যা নিয়ে কথা বলবেন সেলিম মনসুর। একজন আন্তর্জাতিক গবেষকের কাছ থেকে শোনা এবং তাকে প্রশ্ন করার সুযোগ তৈরি করে দেয়ার জন্য শিউলী এবং পাঠশালা অবশ্যই ধন্যবাদ পেতে পারেন।

বাংলাদেশের গণহত্যা নিয়ে একজন আন্তর্জাতিক গবেষকের বক্তব্য শুনতে এবং তাকে প্রশ্ন করতে যারা আগ্রহী, তারা ১১ জানুয়ারি, শনিবার দুপুর ২টা থেকে ৫টা এগলিন্টন স্কয়ার মলে অবস্থিত পাবলিক লাইব্রেরীতে চলে আসতে পারেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here