রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বাউলাঙ্গের গান

0
48

অনলাইন ডেস্ক : রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী সংস্থা, কানাডার আয়োজনে “রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বাউলাঙ্গের গান” শিরোনামে অনুষ্ঠান হয়ে গেল, অক্টোবরের ২৬ তারিখ, শনিবার সন্ধ্যায়, টরন্টোর স্যার ওয়াল্টার স্টিউয়ার্ট পাবলিক লাইব্রেরি অডিটোরিয়ামে। ৩টি পর্বে সাজানো এই আয়োজনের শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংস্থার সভাপতি শাহজাহান কামাল।
প্রথমেই ছিল নিবেদন পর্ব। প্রতি বছরের আয়োজন বাংলাদেশের উল্লেখযোগ্য সঙ্গীতব্যক্তিত্বের প্রতি নিবেদন করা হয়। এবারের আসর নিবেদিত হয় বাংলাদেশের সঙ্গীত জগতের পথিকৃৎ ব্যক্তিত্ব প্রয়াত আবদুল আহাদ স্মরণে। এই পর্বে সংক্ষেপে আবদুল আহাদের সৃষ্টিকর্মকে তুলে ধরেন সংস্থার শিল্পী ডঃ ইখতিয়ার ওমর ও ফারহানা আজিম শিউলী।

২য় পর্বে ফারহানা আজিম শিউলী “রবীন্দ্রনাথের বাউল নির্মাণ ও বাউলাঙ্গের গান” বিষয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করেন। আলোচনায় ‘রবি-বাউলের’ তাত্ত্বিক আলোচনার পাশাপাশি অনুষ্ঠানের সম্মেলক ও একক গান নির্বাচনের প্রেক্ষাপটও তুলে ধরা হয়। এরপর সংস্থার শিল্পীরা ৬টি সম্মেলক গান পরিবেশন করেন। বাউলাঙ্গের সম্মেলক গানগুলো ছিল — এই তো ভালো লেগেছিল আলোর নাচন পাতায় পাতায়, শ্রাবণ তুমি বাতাসে কার আভাস পেলে, বসন্তে কি শুধু কেবল ফোটা ফুলের মেলা, ওই আসনতলের মাটির ‘পরে লুটিয়ে রব, না রে না রে হবে না তোর স্বর্গসাধন ও আমার সোনার বাংলা আমি তোমায় ভালোবাসি।

৩য় পর্বে ছিল সংস্থার শিল্পীদের পরিবেশনায় বাউল সুরাশ্রিত একক রবীন্দ্রসঙ্গীত ও রবীন্দ্রনাথের কবিতার আবৃত্তি। আবৃত্তি করেন আমন্ত্রিত আবৃত্তিশিল্পী হাসান মাহমুদ ও খসরু চৌধুরী। সম্মেলক ও একক সঙ্গীতে অংশ নেন — ডঃ ইখতিয়ার ওমর, শাহজাহান কামাল, হাবিব আহমেদ, নবিউল হক বাবলু, মামুন কায়সার, সুভাষ দাশ, চিত্রা সরকার, নাদিরা ওমর, জীবিনা সঞ্চিতা হক, রুমা রহমান, কুমকুম বল, ফারহানা আজিম শিউলী, শিখা আখতারি আহমাদ, মুক্তি প্রসাদ ও নিঘাত মর্তুজা শর্মী।

তবলায় ছিলেন রনি পালমার ও কি-বোর্ডে মামুন কায়সায়। শব্দ নিয়ন্ত্রণে ছিলেন মাহবুবুল হক। স্থিরচিত্র ও ভিডিওর দায়িত্বে ছিলেন ফটোগ্রাফার নাদিম ইকবাল। অনুষ্ঠানের ব্যানারের ডিজাইন করেন চিত্রশিল্পী রাগীব আহসান এবং আবদুল আহাদের প্রতিকৃতির চিত্রকর্ম শিল্পী মমিনুল হক দুলুর সৌজন্যে প্রাপ্ত।
রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী সংস্থা কানাডা এই আয়োজনের পৃষ্ঠপোষক সহ এর সাথে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িত সবার প্রতি কৃতজ্ঞ। সামনের দিনগুলোতে সংগঠনের রবীন্দ্রসঙ্গীত চর্চা অব্যাহত ও বেগবান করার জন্য সংস্থা সবার সহযোগিতা প্রত্যাশী। (প্রেস রিলিজ)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here